News Section:

আয়েশা আবেদ ফাউন্ডেশনের কিশোরী শ্রমিককে যৌন হয়রানি করায় দুই লম্পটকে কারাদন্ড

বানিয়াচঙ্গে আয়েশা আবেদ ফাউন্ডেশনের এক কিশোরী শ্রমিককে যৌন হয়রানির অপরাধে দুই যুবককে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল সোমবার দুপুরে বানিয়াচঙ্গ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ভ্রাম্যমান আদালতের রায় ঘোষণা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইউএনও দেবজিৎ সিংহ। রায়ে ৫০৯ ধারায় উপজেলা সদরের পাড়াগাঁও এলাকার আহমদ আলীর ছেলে আলকাছ মিয়াকে (৩২) দেড় বছর এবং কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার গাইলঘটা এলাকার মৃত খেলু মিয়ার ছেলে কাউছার আহমদকে (২৯) ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রবিবার দুপুরে শরিফখানি এলাকার এক কিশোরী শ্রমিক আয়েশা আবেদ ফাউন্ডেশনে কর্মস্থলে যাচ্ছিল। পথে হবিগঞ্জ রোডের মেসার্স শাহপরান আতব অটো রাইছ মিল ও মেসার্স শাহপরান সিদ্ধ রাইছ মিলের শ্রমিক কাউছার আহমদ ও আলকাছ মিয়া তার কাছে মোবাইল ফোন নাম্বার চায়। ফোন নাম্বার দিতে অস্বীকার করলে কিশোরীর হাত ধরে টানাহেচড়া শুরু করে ওই দুই শ্রমিক। এ সময় মেয়েটি আত্মরক্ষার্থে চিৎকার দিলে পথচারীরা ইভটিজারদের কবল থেকে ওই কিশোরীকে রক্ষা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে কাউছার আহমদকে গ্রেফতার করলেও তার সহযোগী আলকাছ মিয়া পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। পরে ইউএনও দেবজিৎ সিংহ ঘটনাস্থলে সরেজমিন এসে উভয়পক্ষের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। কিন্তু আসামী আলকাছ পলাতক থাকায় স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল জলিলকে হাজির করার দায়িত্ব দিয়ে শুনানী মূলতবী করা হয়। পরে গতকাল সোমবার দুপুরে আলকাছ মিয়াকে ইউএনও অফিসে হাজির করা হলে ভ্রাম্যমান আদালতের রায় ঘোষণা দেন ইউএনও দেবজিৎ সিংহ।