News Section:

উদীচী বানিয়াচং উপজেলা শাখার চতুর্থ সম্মেলন

"হাসি-গানে মুখরিত সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ না হওয়া পর্যন্ত উদীচীর সংগ্রাম চলবেই"
প্রেস বিজ্ঞপ্তি : ‘তোমার স্বদেশ লুট হয়ে যায় প্রতিদিন প্রতিরাতে, বিরুদ্ধতার চাবুক ওঠাও হাতে’ এই শ্লোগানকে ধারণ করে গত ৮ ডিসেম্বর ২০১২খ্রিঃ তারিখে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলা শাখার চতুর্থ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মেলনে বক্তারা বলেছেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনার আলোকে হাসি-গানে মুখরিত সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশের জন্য উদীচী দির্ঘদিন ধরে সাংস্কৃতিক সংগ্রাম করে যাচ্ছে। স্বাধীনতা বিরোধী মৌলবাদী অপশক্তি ও তাদের প্রভূ সাম্রাজ্যবাদী অপশক্তি এ সংগ্রামকে স্তব্দ করতে মরিয়া। যশোরে উদীচীর দ্বাদশ জাতীয় সম্মেলনে বোমা হামলা ও নেত্রকোনায় উদীচী কার্যালয়ে বোমা হামলা করেছে। বানিয়াচংয়েও উদীচীর অনুষ্ঠানে পর পর ৩ বার সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে। হামলা চালিয়ে কোন অপশক্তিই উদীচীর অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে পারবেনা। সকাল ১১ টায় জনাব আলী ডিগ্রী কলেজ অডিটরিয়ামের সামনে জাতীয় ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে দিনব্যাপী সম্মেলনের আ
নুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। শিল্পীদের কণ্ঠে গাওয়া জাতীয় সংগীতের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন সম্মেলনের প্রধান অতিথি উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদের সদস্য এডভোকেট মকবুল হোসেন এবং উদীচীর পতাকা উত্তোলন করেন সম্মেলনের উদ্বোধক জনাব আলী ডিগ্রী কলেজের উপাধ্যক্ষ মোঃ শামছুজ্জামান। পতাকা উত্তোলনের পর ‘আরশীর সামনে একা একা দাঁড়িয়ে/যদি ভাবি কোটি জনতার মুখ দেখব/হয়না হয়না হয়না/কে বলেছে হয়না/এসো এই মঞ্চে উদীচী এমনই এক আয়না’ গণসংগীতটি সমবেত কণ্ঠে পরিবেশন করা হয়। গানটি শেষে শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে উদ্বোধনস্থল। পরে উদ্বোধনী বক্তৃতা দেন উদ্বোধক উপাধ্যক্ষ শামছুজ্জামান। শুভ উদ্বোধন ঘোষনার পর বের করা হয় বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা। শোভাযাত্রাটি প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উদ্বোধনস্থলে এসে সমাপ্ত হওয়ার পর অডিটরিয়ামের ভেতরে শুরু হয় কাউন্সিল। এতে সর্বসম্মতিক্রমে আব্দুল হক মামুনকে সভাপতি, মোঃ জিতু মিয়া ও স্বপ্না রায়কে সহ-সভাপতি, রিপন চন্দ্র দাশকে সাধারণ সম্পাদক, জাবির আহমেদকে সহ-সাধারণ সম্পাদক, হেলাল মিয়াকে কোষাধ্যক্ষ, আতাউর রহমান, নয়ন মনি দাশ, শ্রাবস্তী রায় ও শর্মিষ্ঠা রায়কে সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য, মোহাম্মদ আলী, সামসু মিয়া, ইমদাদুল হোসেন খান, সুমেন্দ্র চন্দ সুমন, রবিউল আলম সেলিম, আঙ্গুর মিয়া ও সুস্মিতা রায়কে নির্বাহী সদস্য করে নতুন কার্যকরি কমিটি গঠন করা হয়। নতুন কমিটি ঘোষনা করেন বিদায়ী সভাপতি ইমদাদুল হোসেন খান এবং কমিটিকে শপথবাক্য পাঠ করান উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদের সদস্য এডভোকেট মকবুল হোসেন।