News Section:

বানিয়াচঙ্গে যুবদল নেতাকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে মামলা

বানিয়াচঙ্গে যুবদল নেতা ও ছাত্রদল নেতার বিরোধ ও সংঘর্ষ শেষ পর্যন্ত মামলায় গড়িয়েছে। মামলা দায়ের করেছেন যুবদল দক্ষিণ-পশ্চিম ইউনিয়ন শাখার সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান। মামলায় দুই নম্বর আসামী করা হয়েছে উপজেলা ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক সাদিরুজ্জামান খান জোসেফকে। আর তার বড় ভাই মিসবাউজ্জামান খান মুর্শেদকে করা হয়েছে প্রধান আসামী। এছাড়া উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি মরহুম সিদ্দাদুর রহমান চৌধুরী সোয়া মিয়ার ছেলে উপজেলা ছাত্রদলের অন্যতম নেতা রাহুল চৌধুরীকেও আসামী করা হয়েছে। এ নিয়ে ছাত্রদল নেতাদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। বিএনপি নেতৃবৃন্দ এ বিরোধ নিরসনে কোন উদ্যোগ না নেয়ায় দলের অনেকেই বিরূপ মন্তব্য করছেন। গত সোমবার বানিয়াচঙ্গ থানায় মোট ৫ জনকে আসামী করে মামলাটি দায়ের করা হয়।
মামলার এজাহারে আসামীদের বিরুদ্ধে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রাণে হত্যার অভিযোগ করা হয়েছে। অন্যদিকে ছাত্রদলের অনেক নেতাকর্মী জানিয়েছেন, গত বছরের ৬ অক্টোবর হবিগঞ্জের নিউফিল্ডে বেগম খালেদা জিয়ার সমাবেশে ব্যানার সাঁটানো নিয়ে উপজেলা যুবদল সভাপতি শেখ আমির হোসেন ও উপজেলা ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক সাদিরুজ্জামান খান জোসেফের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এর জের ধরে যুবদল ও ছাত্রদলের কিছু নেতাকর্মী দু’গ্র“পে বিভক্ত হয়ে পড়ে। সম্প্রতি শেখ আমির হোসেন গ্র“পের কর্মীদের হাতে জোসেফ প্রহৃত হয়। এর পাল্টা জবাবে জোসেফ গ্র“পের কর্মীদের হাতে আমির হোসেন গ্র“পের জিয়াউর রহমান প্রহৃত হয়।