News Section:

নেইমারের নৈপূণ্যে কোয়ার্টারে ব্রাজিল

ওল্ড ট্র্যাফোর্ড, ২৯ জুলাই: লন্ডন অলিম্পিকের ৩০তম আসরের ফুটবলের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠেছে পাঁচবারের বিশ্বকাপ জয়ী ব্রাজিল। গ্রুপ-সিতে থাকা ব্রাজিল রোববার তাদের দ্বিতীয় খেলায় বেলারুশকে ৩-১ গোলে হারিয়ে অলিম্পিকের এবারের আসরের প্রথম দল হিসেবে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে। ব্রাজিল তাদের প্রথম খেলায় মিসরকে ৩-২ গোলে হারিয়েছিল। পরপর দুই খেলায় জয়ী হওয়ায় ব্রাজিলের পয়েন্ট ৬। ফলে এক খেলা বাকি থাকতেই গ্রুপ-সি থেকে কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা নিশ্চিত করেছে নেইমারের ব্রাজিল। রোববারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের ম্যাচে বেলারুশের বিপক্ষে এক গোলে পিছিয়ে থেকেও নেইমারের অসাধারণ নৈপূণ্যে ৩-১ গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ম্যানেজেস মানোর শিষ্যরা। এদিন নেইমার ব্রাজিলের হয়ে একটি গোল করেছেন এবং খেলার অতিরিক্ত সময়ে আরো একটি গোল করিয়েছেন। খেলা শুরুর আট মিনিটে প্রথম গোল হজম করে ব্রাজিল। বেলারুশের স্ট্রাইকার বারদিনি ব্রেসান ব্রাজিলের জালে বল পাঠালে ১-০ গোলে এগিয়ে যায় বেলারুশ। এই লিড অবশ্য বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি বেলারুশ। ৭ মিনিট পরই ব্রাজিলের আক্রমণভাগের খেলোয়াড় আলেক্সান্দ্রো পাতোর গোলে সমতা আনে ব্রাজিল (১-১)। প্রথমার্ধ শেষ হয় ১-১ গোলে। ৬৫ মিনিটে বেলারুশের ডি-বক্সের সামান্য বাইরে ফ্রি কিক পায় ব্রাজিল। নেইমারের নেয়া চমৎকার ফ্রি কিক বেলারুশের জালে জড়িয়ে গেলে ২-১ গোলে এগিয়ে যায় ব্রাজিল। খেলার অতিরিক্ত সময়ে অর্থাৎ ৯০+৩ মিনিটে বামপ্রান্ত দিয়ে নেইমার বেলারুশের দুইজন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে ডান পায়ের চমৎকার ব্যাকহিলে বল দেন অস্কারকে। অস্কারের নেয়া ডান পায়ের দুর্দান্ত শট বেলারুশের জালে আশ্রয় নিলে ৩-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল। এ খেলায় ব্রাজিল আটটি কর্নার পেলেও বেলারুশ পায় চারটি কর্নার। বেলারুশের দুইজন খেলোয়াড় হলুদ কার্ড পান। অবশ্য ব্রাজিলের কোনো খেলোয়াড় হলুদ কার্ড পাননি। ব্রাজিল সাতবার গোলমুখে শট নেয়। পক্ষান্তরে বেলারুশ তিনবারের বেশি গোলমুখে শট নিতে পারেনি। উল্লেখ্য, বিশ্বকাপ ফুটবলে পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হলেও অলিম্পিকের মতো বড়ো আসরে এখনো চ্যাম্পিয়নের মুখ দেখেনি ব্রাজিল।